‘পেঁয়াজ আমদানিতে ভারত-নির্ভরতার বিকল্প চিন্তা করতে হবে’

Spread the love
আহসান এইচ মনসুর

অনলাইন ডেস্ক : বেশ কিছুদিন ধরে পেঁয়াজের বাজার অস্থির হয়ে আছে। ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করার পর এই অস্থিরতা আরও বেড়েছে। গত কয়েকদিনে অন্যান্য দেশ থেকে আমদানি করার পরও পেঁয়াজের দাম কমেনি। বাজার অস্থিরতা, পেঁয়াজের আমদানি নির্ভরতা নিয়ে সমকাল অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক আহসান এইচ মনসুর

বাজার ওইভাবে তৈরি ছিল না। এ কারণে ভারত রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ার পরই প্রভাব পড়েছে পেঁয়াজের দামের ওপর। এটা নিয়ে কাউকে দোষ দেওয়া যায় না। ভারতে এবার প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে পেঁয়াজ উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। এটা হতেই পারে। সেটা নিয়ে তারা আগাম সতর্ক বার্তা দিয়েছিল। আমাদের এখানে সে ব্যবস্থা নেই। ভারতের ওপর আমদানি নির্ভরতার বিকল্প চিন্তা ছিল না আমাদের। সে কারণে এখানকার বাজারে তার প্রভাব পড়েছে।

অনেক পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে, কিন্তু সেগুলো আসলে কী দামে আমদানি করা হচ্ছে সেটা আমাদের জানা নেই। ভারতে পেঁয়াজের দাম কত, পরিবহন খরচ কত পড়ে, সেটা অনেকের কাছেই স্পষ্ট। কিন্তু অন্য দেশ থেকে আনা পেঁয়াজের দাম কত পড়ছে সেটা নির্ভর করছে আমদানি খরচের ওপর।

পেঁয়াজ মৌসুমি পণ্য। মৌসুমে কী পরিমাণ পেঁয়াজ উৎপাদন হচ্ছে, কত আমদানি করা হচ্ছে– তা নিয়ে হয়তো এক বছর একটা হিসাব করা হয়। সে ধারণাই বছরের পর চলতে থাকে। হয়তো দেশেও এ বছর প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে পেঁয়াজ উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। কিন্তু এর তথ্য নেই। সরকারের পক্ষ থেকে সবসময়ই ইতিবাচক কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু প্রকৃত পরিস্থিতি নির্ভর করে চাহিদা অনুযায়ী বাজারে সরবরাহ কী পরিমাণ আছে সেটার ওপর।

টিসিবি কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করছে। কিন্তু সেটা কতজনের চাহিদা পূরণ করতে পারবে? দেশে যদি বাজার মনিটরিং পদ্ধতি সক্রিয় থাকতো তাহলে ব্যবসায়ী, ভোক্তা সবাই সতর্ক থাকতো। কিন্তু দেশে এরকম কোনো প্রতিষ্ঠান নেই।

রাতারাতি হয়তো পেঁয়াজের দাম কমবে না। কিন্তু এ অবস্থা বেশিদিন থাকতে পারে না। সেক্ষেত্রে আমার পরামর্শ হলো কম করে পেঁয়াজ খাওয়া।

বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকার বাজার ব্যবস্থা উদার করতে পারে। সেক্ষেত্রে সরকারের উচিত আগামী এক মাস পেঁয়াজ আমদানির ওপর থেকে সব ধরনের ট্যাক্স উঠিয়ে দেওয়া। সেই সঙ্গে আমদানির ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া।

ভারতের সবচেয়ে নিকটতম প্রতিবেশী বাংলাদেশ। ভারত থেকে প্রচুর জিনিস আমদানি করে বাংলাদেশ। অন্য সব দেশের চেয়ে সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে যাতে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হয়, সঙ্গত কারণে এমন প্রস্তাব ভারত সরকারের কাছে বাংলাদেশ সরকার করতেই পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *