7.6 C
New York
Saturday, December 4, 2021

Buy now

spot_img

বাড়ি ফেরার সময় হলো

অনলাইন ডেক্স: লাল-নীল রঙিন স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপে আসা। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি সাজানো হয়েছিল ম্যাচের পর ম্যাচ জয়ের আশার ফুল দিয়ে। মরুর বিশ্বকাপে মরীচিকা হয়ে গেছে সেসব দিনের কথা। শ্রীলঙ্কা, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে বড় হারের পর প্রতিশ্রুতির কথা মনে করে হয়তো লজ্জায় লাল হচ্ছেন ক্রিকেটাররা। গতকাল ম্যাচ হারের ব্যবচ্ছেদ করতে সংবাদ সম্মেলনে আসা তাসকিন আহমেদ মুখ তুলে তাকাতে পারছিলেন না। সুদর্শন এ ফাস্ট বোলারকে ক্ষতবিক্ষত করে দিচ্ছিল প্রশ্নের ছুরির ফলা। সুপার টুয়েলভে চার ম্যাচ খেলে সবহারা দলের খেলোয়াড়ের বলার কী বা থাকে। শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে না হয় ভালো খেলায় হারের ব্যাখ্যা দেওয়া গেছে। গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৮৪ রানে অলআউট এবং ৬ উইকেটের পরাজয়ের পেছনে কোনো যুক্তি কাজ করবে না। তাসকিন যুক্তি খোঁজার বৃথা চেষ্টা না করে সরল ভাষায় বললেন, ‘আমরা পারিনি। পারছি না।’
অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডকে সিরিজ হারিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বকাপে এসেছিল অন্যতম ফেভারিটের তকমা নিয়ে। দেশে ফেরার আগে সেই দলের সাঙ্গ হলো ২০২১ টি২০ বিশ্বকাপের ‘মিনোস’ অপবাদ। মাহমুদউল্লাহরা বলেছিলেন, বাছাই পর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সুপার টুয়েলভে ম্যাচ জিতে উৎসবের উপলক্ষ এনে দেবেন। পরাজিত দলের অধিনায়ক এখন নিজেই সংবাদ সম্মেলনে আসার উপলক্ষ পাচ্ছেন না। আসলে হারের ভেলায় ভাসতে ভাসতে গভীর সাগরে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ দল। পরাজয়ের সাগরে অপেক্ষা এখন সলিল সমাধির। বিশ্বকাপের
আকাশের সূর্যঘড়িটাও বলে দিচ্ছে শেষ পরিণতির সময় এসে গেছে। কাল, হ্যাঁ, কালই তো বাংলাদেশের বিশ্বকাপের পরিসমাপ্তি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। তাই আর একটি হার দেখার মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে পারেন। তাতে অন্তত আর দুঃখ পেতে হবে না।
ভারত মহাসাগর, ইংলিশ চ্যানেল, ক্যারিবীয় সাগর জয়ের স্বপ্ন একে একে বিসর্জন গেছে আগেই। আটলান্টিকের পাড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ অব গুড হোপের বাতিঘরে আলো জ্বালাতে চেয়েছিলেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। আলোর দেখা মেলেনি সেখানেও। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে বলতে গেলে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং কিছুই হয়নি। ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো জানিয়েছিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিন খেলা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। তিন বছর কাজের অভিজ্ঞতার আলোকে বলা কোচের কথার মিল পাওয়া গেল না ম্যাচ শুরুর পর। টাইগার কোচ আরও বলেছিলেন, শেষ দুই ম্যাচে ভালো খেলতে উন্মুখ হয়ে আছে দল। পুরো ম্যাচে ভালো খেলার ছিটেফোঁটাও দেখা যায়নি। বরং ভুলের মাঝে ডুবে ছিলেন কোচ ও খেলোয়াড়রা। পিচ পড়তে ভুল করেন ডমিঙ্গো এবং মাহমুদউল্লাহ। স্পিনার দিয়ে বোলিং লাইনআপ সাজান পেস সহায়ক উইকেটে। ব্যাটিং লাইনআপ, বোলার পরিবর্তনেও মুনশিয়ানা চোখে পড়েনি।
ইনজুরিতে পড়ে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও সাকিব আল হাসান ছিটকে গেলে ১৪ জনের দল হয় বাংলাদেশ। তলপেটে ব্যথা থাকায় খেলতে পারছেন না নুরুল হাসান সোহান। ম্যাচ খেলার জন্য ফিট ছিলেন ১৩ জন। পেসার রুবেল হোসেনের সঙ্গে মুস্তাফিজুর রহমানকে বিশ্রাম দেওয়া হলে অটো চয়েজের ১১ জন নিয়ে খেলতে নামে দল। বিশ্বকাপে অভিষেক হয় তরুণ শামীম পাটোয়ারীর। আবুধাবির শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়ামে তার ম্যাচটিই বাজে পরাজয় বাংলাদেশের। টস হেরে ব্যাটিং পান মাহমুদউল্লাহরা। ঘাসের উইকেট বারুদ বোলিং করেন রাবাদারা। ফাস্ট বল মোকাবিলা করতে গিয়ে ব্যাটাররা আঁতকে উঠলেন ভূত দেখার মতো আতঙ্কে। পাওয়ার প্লের ৬ ওভার শেষ হয় ২৮ রানে ৩ উইকেটে। এবারের বিশ্বকাপে পাওয়ার প্লেকে ‘স্লো প্লে’ বানিয়ে ফেলেছে বাংলাদেশ। প্রথম ৬ ওভারে ২৫ থেকে ২৯ রানে আটকে ছিল বেশিরভাগ ম্যাচে। ব্যাটিংয়ের শুরু আর শেষটা মন্থর করায় স্কোর বোর্ডে পর্যাপ্ত রান ওঠেনি। বরং কমতে কমতে সেটা ৮৪ রানে ঠেকল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। অল্পের জন্য টি২০-তে নিজেদের সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড হয়নি। ২০১৬ সালে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে করা ৭০ রান টিকে গেল এ যাত্রায়।
বাংলাদেশ অলআউট হয় ১০ বল হাতে রেখে। ১১ জনের তিনজন দুই অঙ্কের স্কোরে যেতে পেরেছেন। ৩৬ বলে লিটন দাসের ২৪, শামীম পাটোয়ারীর ১১ আর শেখ মেহেদীর ২৭। বাকি আটজনের রান সাজালে হয় ঢাকার টেলিফোন ডিজিট। কন্ডিশনের সুবিধা থাকায় বোলাররা ভালো করছিলেন। পুঁজিটা ১২০ রানের হলেও লড়াই করে যেতে পারতেন তারা। তাসকিন, শরিফুলের বলে খেলা সহজ ছিল না। তাই ৮৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমেও ৪ উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। তাসকিন ১৮ রানে পান দুটি উইকেট। খেলা শেষে তাসকিনের কণ্ঠেও ছিল রান করতে না পারার আক্ষেপ। যদিও কাল টুর্নামেন্ট শেষ করতে চাইলেন ভালোর আশার মশাল জ্বালিয়েই।

সম্পর্কিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সোস্যাল প্লাটফর্ম

27,000FansLike
15,000FollowersFollow
2,000SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ