সুপার সাইক্লোন আম্ফান: ভোলায় উপকূলীয় এলাকা থেকে তিন লক্ষ মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হচ্ছে

Spread the love

কামরুজ্জামান শাহীন,ভোলা প্রতিনিধি: সাগরে সৃষ্ট শতাব্দীর সুপার সাইক্লোন আম্ফান মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতির নিয়েছে ভোলা জেলা প্রশাসন। তার অংশ হিসেবে ভোলার ২১ চরের তিন লক্ষ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে আনা হচ্ছে।

মঙ্গলবার(১৯ মে) সকাল থেকে বিভিন্ন উপকূলীয় এলাকা থেকে প্রশাসনের মাধ্যমে নৌ-বাহিনী, নৌ-পুলিশ, জেলা পুলিশ ও কোস্টগার্ডের সহায়তায় এসব মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হচ্ছে।
একই সঙ্গে এসব মানুষ সাইক্লোন সেল্টারে আশ্রয় নেওয়া ব্যাপারে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য অতিরিক্ত ৪ শতটি আশ্রয় কেন্দ্রসহ সর্বমোট ১১০৪টি আশ্রয় কেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে বলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানান হয়।

ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানান, সবাইকে সতর্ক করার পাশাপাশি নিরাপদে আসতে সিপিপি ১০ হাজার ২ শত সেচ্ছাসেবী উপকূলের বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং ও জানসাধারনকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসছে। নদী ও সাগরে অবস্থানরত সকল নৌযানকে নিরাপদ আশ্রয়ে আসতে বলা হয়েছে।

তিনি আরো জানান,সুপার সাইক্লোনে প্রস্তুতি হিসেবে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার বিছিন্ন দ্বীপ ঢালচর ইউনিয়ন থেকে প্রায় ১০ হাজার মানুষকে মঙ্গলবার সকাল থেকে ৫০ টি ট্রলার যোগে মূল-ভ’খন্ড চরফ্যাশনে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হচ্ছে। এছারাও বিভিন্ন উপকূলীয় এলাকা থেকে তিন লক্ষ মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হচ্ছে।

এসব আশ্রয় কেন্দ্রে মানুষদের জন্য ৩ বেলা খাবারের ব্যবস্থা ছাড়াও নগদ টাকা, শুকনো খাবার ও শিশু খাবার বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সাইক্লোনের আগে, সাইক্লোনের সময় ও সাইক্লোন পরবর্তী এ তিনটি ধাফেই কাজ করার জন্য সব প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা প্রশাসন।