করোনাদুর্গতদের জন্য চালের এটিএম চালু

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের কারণে দেশব্যাপী লকডাউন চলায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে বিনামূল্যে চাল বিতরণের জন্য অটোমেটেড টেলার মেশিন (এটিএম) চালু করেছে ভিয়েতনাম সরকার। দেশটির হো চি মিন সিটির এক উদ্যোক্তার তৈরি মেশিনটি দিয়ে সপ্তাহে সাত দিন ২৪ ঘণ্টা চাল বিতরণ করা যাবে। 

দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, হ্যানয়, হিউ এবং দানাংয়ের মতো অন্যান্য বড় শহরেও একই ধরনের ‘রাইস এটিএম’ বসানো হয়েছে। খবর রয়টার্সের

ভিয়েতনামে এখন পর্যন্ত ২৬২ জন কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছে। তবে দেশটিতে এখনো করোনায় কারো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে ৩১ মার্চ শুরু হওয়া ১৫ দিনের সামাজিক দূরত্ব কর্মসূচির ফলে দেশটিতে অনেক ছোট ছোট ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে এবং কয়েক হাজার মানুষ কাজ হারিয়েছেন।

যারা চাকরি হারিয়েছেন তাদের মধ্যে গুইন থি লির স্বামীও আছেন। তিন সন্তানের জননী ৩৪ বছর বয়সী এই নারী জানান, এই ‘রাইস এটিএম’ আমাদের জন্য খুব সহায়ক। এক ব্যাগ চাল আমাদের একদিনের জন্য পর্যাপ্ত। এখন আমাদের কেবল অন্য খাবারের দরকার। প্রতিবেশীরা মাঝে মাঝে তাদের বেঁচে যাওয়া কিছু খাবার দেয়। এছাড়া ঘরে কিছু নুডলস রয়েছে।

এটিএম থেকে একজনকে প্রতিদিন দেড় কেজি চাল দেওয়া হয়, যাদের মধ্যে অনেকেই রাস্তার ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতা, গৃহকর্মী বা লটারির টিকিট বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেন। 

এই উদ্যোগের পেছনে রয়েছেন হোয়াং তুয়ান আন নামের একজন ব্যবসায়ী; যিনি খাদ্য বিতরণের এই প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জনের আগে হো চি মিন শহরের হাসপাতালগুলোতে এক ধরণের ডিজিটাল ডোরবেল বিতরণ করেছিলেন। 

রাইস এটিএমের বিষয়ে দেশটির কর্মকর্তারা কোনো মন্তব্য করতে চাননি। তবে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমকে আন জানান, তিনি চেয়েছেন বর্তমান অর্থনৈতিক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও মানুষের কাছে খাদ্য এবং অন্য সংস্থান রয়েছে- এটা তারা অনুভব করুক।