পল্লী চিকিৎসকদের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজন পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট

Spread the love

এমডি. আজিজুর রহমান, বরুড়া: বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে বলা হয়েছে, জ্বর, সর্দি ও কাশি এগুলো সিজনালী সমস্যা। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এ ধরনের সমস্যা নিয়ে হসপিটালে না আসার জন্য রোগীদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছিলো। তারা যেনো নিজ বাড়ীতে অবস্থান করে ফোনে কথা বলে চিকিৎসা নেয়। সেজন্য হেলথ কমপ্লেক্স থেকে একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটির ডাক্তারগণ ফোনে চিকিৎসা সেবা প্রদান করবে।

কিন্তু জ্বর, সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত রোগীরা ফোনে সেবা না নিয়ে, প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে ভীড় করছে বরুড়ার বিভিন্ন গ্রামের বাজারগুলোতে পল্লী চিকিৎসকদের কাছে। রোগীরা এ দুঃসময়ে পল্লী চিকিৎসকদের কাছ থেকে তাদের কাঙ্খিত সেবা নিচ্ছে। এতে করে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের ঝুকিতে পড়েছেন এ পল্লী চিকিৎসকরাও।

ডিপ্লোমা মেডিকেল এসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে অনুরোধ জানিয়েছেন, এমুহুর্তে তাদের নিরাপত্তার জন্য পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট প্রয়োজন। তাঁরা এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আনিসুল ইসলাম ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নিশাত সুলতানার সদয় দৃষ্টি কামনা করেন।

উক্ত সংগঠনের সাথে সমন্বয় করে বেশি প্রয়োজন এমন পল্লী চিকিৎসকদের পিপিই পোশাকটি দিলে পল্লী চিকিৎসকরা যেমন নিরাপদে থাকবে, রোগীরাও নিরাপদে থাকবে।