ফুলবাড়ী পৌর শহর সহ উপজেলায় প্রায় ৪০ হাজার খেটে খাওয়া মানুষ অনাহারে অদ্যাহারে দিন কাটাচ্ছে

Spread the love

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি: সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের কারণে দেশে লক ডাউন করার কারণে সারা দেশের ন্যায় ফুলবাড়ী পৌর শহর সহ উপজেলায় প্রায় ৪০ হাজার খেটে খাওয়া মানুষ অনাহারে অদ্যাহারে দিন কাটাচ্ছে।

এর মধ্যে ফুলবাড়ী পৌর সভার ৯টি ওয়ার্ডে রয়েছে রিক্সা চালক, রাজমিস্ত্রী শ্রমিক, ট্রাক শ্রমিক, বাস শ্রমিক, টেম্পু শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক মোট এই সংগঠনগুলির প্রায় ১৫ হাজার পরিবার অনাহারে অদ্যাহারে দিন কাটাচ্ছে। তাদের সমস্ত কাজকর্ম বন্ধ হয়ে গেছে। রাস্তা গুলিতে জনশূন্য পড়েছে। ফুলবাড়ী পৌর শহর সহ গ্রামগঞ্জে বাজার গুলিতে শত শত হোটেল রেস্তোরা দোকানপাট সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হয়ে গেছে। এমনিতে চৈত্র মাস, চারিদিকে ধূ-ধূ। তীব্র তাপদাহে জ্বলছে কৃষি জমি গুলি। কৃষকেরা জমিগুলিতে করোনা ভাইরাসের কারণে পানিও দিতে পারছে না, পুড়ছে ফসল।

খেটে খাওয়া মানুষগুলি ক্ষুধার যন্ত্রনায় মানুষের কাছে এই ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের কারণে যেতে পারছে না। কার কাছে যাব, কে দিবে সাহায্য? এদিকে রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা মরণ ব্যাধি করোনা ভাইরাসের কারণে যার যার স্থানে অবস্থান করছে। মাঠে কোন সরকারের নেতাকর্মী এমনকি সংসদ সদস্য নেই। এই দূর্যোগ মুহুর্তে খেটে খাওয়া মানুষগুলির পাশে কেউ দাঁড়াচ্ছে না। ফুলবাড়ী বাসষ্ট্যান্ডে একজন শ্রমিক জানান, কাজকর্ম সমস্ত বন্ধ হয়ে গেছে, আমার পরিবারের ৫জন সদস্য।

গাড়ির হেলপারি করি, ২ কেজি চাউল কেনার মত ঘরে টাকা নেই। এমনি কথা বললেন, রাজমিস্ত্রী শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোঃ আলতাফ হোসেন। তিনি বলেন, প্রত্যেক দিন কাজ করলে টাকা পেতাম। এখন এক কাপ চা খাবো সে টাকাও নাই। বাড়ি চালাতেও পারছি না। এ অবস্থা থাকলে মৃত্যু ছাড়া কোন উপায় নেই।

ফুলবাড়ী পৌরসভার প্যানেল মেয়র মামুনুর রশীদ চৌধুরী মামুন, তিনি জানান আমার ৪নং ওয়ার্ডে প্রায় ১৫শ দিন মজুর রয়েছে। তারা আমাকে প্রত্যেকদিন সহযোগিতা করার কথা বলছে। সরকারিভাবে অর্থ না পেলে আমার পক্ষে সামলানো মুশকিল হয়ে পড়েছে। এমনি অবস্থা ফুলবাড়ী পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে।

এদিকে উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের খেটে খাওয়া মানুষের একই অবস্থা বিরাজ করছে। জরুরী ভিত্তিতে সরকারিভাবে খাদ্য সরবরাহ না করা হলে খেটে খাওয়া মানুষগুলি অনাহারে অদ্যাহারে দিন কাটাবে।
এ ব্যাপারে খেটে খাওয়া দিন মজুর মানুষগুলির পাশে বিত্তবান ও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদেরকে দাঁড়ানোর জন্য বিভিন্ন মহল সবিনয় নিবেদন জানিয়েছেন। এমনকি সরকারের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।