লোহাগড়ায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা

Spread the love

মোঃ আঃ রহমান শেখ, নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের লোহাগড়ায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও লোহাগড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকারকে (৪৫) কুপিয়ে হাত-পা বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি কালনা গ্রামের মৃত ময়ের খন্দকারের ছেলে। ২৪ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে যশোর-কালনা সড়কের চর-কালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের সামনে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রত‍্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, তিনি বাড়ি থেকে মটরসাইকেল যোগে কালনা ঘাটে তার ইটের ভাটায় যাচ্ছিলেন। পথিমধ‍্যে দুর্বৃত্তরা গতিরোধ করে রামদা, ছ‍্যানদা দিয়ে উপর্যুপরি কোপাতে থাকেন। একপর্যায়ে তার একটি হাত ও দুটি পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে দুর্বৃত্তরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানন্তর করেন। খুলনায় নেওয়ার পথে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বতর্মান চেয়ারম্যানের ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নজরুল শিকদারের সঙ্গে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে বদর খন্দকারের উপর এ হামলা হয়েছে।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন ঘটনার সত‍্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং ডিবি পুলিশের নজদারিতে রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ধারালো রামদা, একজোড়া স‍্যান্ডেল, একটি খালি কালো ব‍্যাগ, এবং একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।