বরগুনার তালতলীতে যৌতুকের দাবীতে গৃহ বধু হামিদার উপর নির্যাতন

Spread the love

মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলীতে যৌতুকের দাবীতে গৃহ বধু হামিদা বেগমের উপর দীর্ঘদিন যাবত অমানবিক নির্যাতন চালাছে মাছুম বিল্লাহ নামে যৌতুক লোভী এক পাষান্ড স্বামী।

এব্যাপারে নির্যাতিত গৃহ বধু হামিদা বেগম বাদী হয়ে ২০১৮ সালের যৌতুক নিরোধ আইনের ৩ ধারায় স্বামী মাছুম বিল্লাহ (৩৫) সহ ৪ জন কে আসামী করে গত ১৮/০২/২০২০ ইংরেজী তারিখে আমতলী উপজেলা বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি যৌতুক মামলা দায়ের করেন। মামলার অপর আসামীরা হচ্ছে-নির্যাতিত হামিদার শশুর মোঃ ইউনুছ হাং (৫৮), শাশুরী মমতাজ বেগম (৫৭) ও দেবর মোঃ আমিন (২৩)।

মামলা ও এলাকা সূত্রে জানাযায়, বরগুনার তালতলী উপজেলাধীন কড়ইবাড়িয়া ইউনিয়নের অন্তর্গত দক্ষিন ঝাড়াখালী গ্রামের মোঃ ইউনুছ হাওলাদারের পুত্র মোঃ মাছুম বিল্লার সাথে ২০১১ সালের ১৫ এপ্রিল একই উপজেলার শারিকখালী ইউনিয়নের বাদুরগাছা গ্রামের আঃ জলিল খলিফার ২য় কন্যা মোসাঃ হামিদা বেগমের রেজিষ্ট্রি কাবিন নামা মোতাবেক বিবাহ হয়। বিবাহের পর থেকেই যৌতুক লোভী স্বামী ও শশুর-শাশুরী যৌতুকের দাবীতে গৃহ বধু হামিদার উপর অমানবিক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অযুহাতে দীর্ঘ ৯ বছরে প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকা নিয়েছে যাহার লিখিত স্বাক্ষরও রয়েছে বলে নির্যাতিত হামিদার পরিবার জানান।

গৃহ বধু হামিদা তার ভবিষ্যত জীবনের কথা চিন্তা করিয়া ও তার একমাত্র ৫ বছরের শিশু সন্তান হামজালার মুখের দিকে তাকিয়ে স্বামী ও শশুর-শাশুরীর এ অত্যাচার নির্যাতন সবই নিরবে সহ্য করিতে থাকে। এভাবে দিন দিন স্বামী, শশুর-শাশুরী ও ননদদের যৌতুকের দাবী ও তাদের অমানবিক অত্যচার নির্যাতন সহ্য করিতে না পাড়িয়া স্বামী, শশুর-শাশুরীকে নিয়া গত ১৭/০২/২০২০ ইংরেজী তারিখে গৃহ বধু হামিদা তার পিতার বাড়িতে আসিলে হামিদার পরিবারের নিকট তার স্বামী ও শশুর-শাশুরী বিবাহের পন হিসেবে পুনরায় যৌতুক বাবদ নগদ ২,০০,০০০ /= (দুই লক্ষ) টাকা এবং একটি ফ্রিজ দাবী করে।

নির্যাতিত হামিদার দরিদ্র পিতা আঃ জলিল খলিফা তাদের বার বার দাবীকৃত যৌতুকের এত টাকা ও ফ্রিজ দিতে অপরগতা স্বীকার করিলে তারা ৫বছরের শিশু সন্তান সহ গৃহ বধু হামিদাকে তার পৃত্রালয় ফেলে রেখে চলে যায় এবং এলাকায় গৃহ বধু হামিদার নামে তার যৌতুক লোভী স্বামী মাছুম বিল্লাহ বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা অপবাদ ও বদনাম রটাচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।