করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়তে চীনের নার্সদের চুল বিসর্জন

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কায় চীনের উহানে নার্সদের চুল কেটে দেওয়া হচ্ছে। সংক্রমণের সমস্ত পথ বন্ধ করতেই নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা চুল কেটে ফেলছেন বলে জানা গেছে।

গত বছরের শেষদিক থেকে হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে নভেলা করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ছাড়িয়েছে। 

গত প্রায় দু’মাস ধরে উহানের হাসপাতালগুলোতে জরুরি সেবা দিয়ে চলেছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। সংক্রমণ এড়াতে সর্বোচ্চ সতর্কতা নিয়ে চলছে কাজ। তা সত্ত্বেও করোনার থাবা থেকে নিস্তার পাচ্ছেন না তারা। মৃত্যু হচ্ছে চিকিৎসক, হাসপাতালের ডিরেক্টর ও স্বাস্থ্যকর্মীর। খবর শিনহুয়ার

এরপর আর ঝুঁকি নেননি চিকিৎসক ও নার্সরা। সংক্রমণের সমস্ত পথ বন্ধ করতে চুল কেটে ফেলেছেন নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা। 

এতে দুটি উপকার হবে বলে মনে করছেন তারা। প্রথমত, চুলের মাধ্যমে প্রাণঘাতী জীবাণুর সংক্রমণ এড়ানো যাবে। দ্বিতীয়ত, হাসপাতালে প্রবেশের পর যে সুরক্ষাবর্ম তাদের পরতে হয়, তা বদল করাও অনেক সহজসাধ্য এবং কম সময়ের মধ্যে হবে। 

এ ব্যাপারে ২৬ বছর বয়সী দিং দানি বলেছেন, আমি অনেকদিন ধরেই বড় চুল রাখছি। এতটুকুও কাটতে চাইনি। কিন্তু করোনার সঙ্গে মোকাবিলায় চুল কেটে ফেলাই শ্রেয় মনে করলাম।