চীনে করোনাভাইরাসে একদিনে মৃত্যু ৬৪ জনের

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: চীনের হুবেই প্রদেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে সোমবার দিন শেষে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪২৫ জনে। আর এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এরই মধ্যে ২০ হাজার ছাড়িয়েছে, যার মধ্যে সর্বশেষ একদিনে ৩ হাজার জনের বেশি আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন বলছে, যেখান থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছিল সেই  হুবেই প্রদেশ সোমবার একদিনে ৬৪ জন এ ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। খবর বিবিসির।

এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১৫০ জনের বেশি, যাদের মধ্যে ফিলিপাইনে একজন মারা গেছে। 

এদিকে চীনের শীর্ষ নেতৃত্ব মরণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে তাদের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থপনার ‘স্বল্পতা ও ঘাটতি’র কথা স্বীকার করেছে। দেশটির পলিটব্যুরো স্থায়ী কমিটি বলছে, তাদের ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে আরও উন্নতি করতে হবে। একই সঙ্গে দেশটির যে বাজার থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে সেই বণ্যপ্রাণী মার্কেটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর উহান শহরে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়। এরপর এক মাসে মৃত্যুর সংখ্যা চারশ’ ছাড়ালো। এর কোনো টিকা বা ভ্যাকসিন তৈরি না হওয়ায় ভাইরাসটি থেকে নিরাপদ থাকার একমাত্র উপায় হলো, আক্রান্ত বা ভাইরাস বহনকারীদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলা, কিছু স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা ও পরিচ্ছন্নতা থাকা। অন্যান্য দেশেও করোনাভাইরাস ছড়াতে থাকার প্রেক্ষাপটে বিশ্বজুড়ে সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। কয়েকটি দেশ এরই মধ্যে তাদের নাগরিকদের চীন থেকে সরিয়ে নিয়েছে ও নিচ্ছে।

এর আগে ২০০২-০৩ সালে সার্চের প্রাদুর্ভাবে চীনের মূল ভূখণ্ডে (হংকং ছাড়া) ৩৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছিল।