ঠাকুরগাঁওয়ে খাবার খেয়ে এক গ্রামের ১৩ জন অসুস্থ্য

Spread the love

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: বাসায় খাবার খেয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে একটি গ্রামের যৌথ পরিবারের ১৩ জন অসুস্থ্য হয়ে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসাপাতালে ভর্তি হয়েছে। বুধবার দুপুর থেকে একে একে অসুস্থ্য হয়ে পরলে সন্ধ্যার পর তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। এদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। অসুস্থ্য রোগীরা সবাই ঠাকুরগাঁও সদরের আকচা ইউনিয়নের দক্ষিন বঠিনা গ্রামের বাসিন্দা।

স্বজনরা জানান, সতেন্দ্র বর্মন, নিত্যানন্দ বর্মন, অমির চক্র বর্মন ও হরবিন্দু বর্মন চার ভাই একই বাড়িতে বসবাস করেন। প্রতিদিনের মতো সকালে খাবার খেয়ে যার যার কর্মস্থলে যায় তারা। পরে প্রত্যেকে তাদের নিজ নিজ কর্মস্থলে অসুস্থ্য বোধ করলে অন্যের সাহায্য নিয়ে বাসায় ফিরে। এছাড়া বাসার অন্যান্য সদস্যরাও বাসার খাবার খেয়ে প্রথমে তাদের মাথা ব্যথা ও পরে বমি করে।

এরপর একে একে অজ্ঞান হয়ে যায় । অসুস্থ্য হওয়ার খবর শুনে আশপাশের প্রতিবেশিরা এসে বাসায় প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়। তারপরও জ্ঞান না ফেরায় সন্ধ্যার দিকে তাদের সবাইকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অসুস্থ্য রোগী চন্দ্র মোহন, আলপনা, উৎসসহ ১৩ জনই হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে অনেকেরই জ্ঞান ফিরলেও স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারছে না কেউই।

কিভাবে এমন হলো তা জানতে চাইলে কেউ বলছেন পানি থেকে হতে পারে আবার কেউ বলছেন বাসার খাবার খেয়ে হতে পারে। এমন ঘটনা আগে কখনো ঘটেনি বলে জানান তারা। আর ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে হরবিন্দু বর্মন ও আলপনা নামের দুজনের শারিরিক অবস্থা গরুতর বলে জানান চিকিৎসক।

এ বিষয়ে আধুনিক সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ লিটন সরকার জানান, যারা ভর্তি হয়েছে তারা কি কারনে অসুস্থ্য হয়েছে তা এখনো স্পষ্ট না। তাদের কে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আমরা কারন নিশ্চিত করার জন্য কাজ করছি। তবে খাবারের কারণেই অসুস্থ্য হয়ে থাকতে পারে বলে চিকিৎসকরা প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন।