খালেদা জিয়াকে নিয়ে বিএসএমএমইউ পরিচালকের বক্তব্য মনগড়া: বিএনপি

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যগত অবস্থা সম্পর্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষের গত রোববার দেওয়া বিবৃতিকে ‘মনগড়া’ ও ‘পরিকল্পিত মিথ্যাচার’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে বিএনপি। দলটির অভিযোগ- ‘এই বিবৃতি সরকারেরই ফরমান।’ৱ

সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘সরকার এদেশের মানুষের প্রাণপ্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে বন্দি রেখে হত্যার আয়োজন সম্পন্ন করেছে।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, খালেদা জিয়াকে দেখে এসে তার স্বজনরা জানিয়েছেন, দিন দিন তার অবস্থার আরও অবনতি হচ্ছে। তিনি ঠিকমতো কথাবার্তা বলতে পারছেন না। স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারেন না। সারাক্ষণ বমি করছেন। গায়ে প্রচণ্ড জ্বর। সারাক্ষণ তীব্র ব্যথায় কাতরাচ্ছেন। বাম হাত সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। হাসপাতালের চিকিৎসায় কোনো কাজ হচ্ছে না। তার জন্য দ্রুত উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।

রিজভী বলেন, বিএসএমএমইউর পরিচালকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে- খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কোনো কোনো ক্ষেত্রে আশানুরূপ উন্নতি হয়েছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে স্থিতিশীল রয়েছে। তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আছে। মুখের ঘা সেরে গেছে, দাঁতের ব্যথা ভালো হয়েছে, শারীরিক দুর্বলতা কমেছে। আর্থ্রাইটিসের ব্যথা কমানোর জন্য তাকে আধুনিক চিকিৎসাসেবার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়া নাকি আর্থ্রাইটিসের চিকিৎসা নিতে সম্মতি জ্ঞাপন করেননি, তাই এটির আশানুরূপ উন্নতি হচ্ছে না। পরিচালকের এসব বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য, মনগড়া ও ফরমায়েশি বিবৃতি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, বিবৃতিতে ইনিয়ে-বিনিয়ে দেশনেত্রীকে সুস্থ বলে প্রচারের অপপ্রয়াস চালানো হয়েছে। এর প্রতিটি শব্দ, প্রতিটি লাইন অসত্য ও একজন চিকিৎসকের পেশাদারিত্বের পরিপন্থী। 

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।