ইভিএম বঙ্গোপসাগরে ফেলে দিতে হবে: আমীর খসরু

Spread the love
মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী

অনলাইন ডেস্ক: ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনকে (ইভিএম) ভোট চুরির নীরব অস্ত্র আখ্যা দিয়ে ইভিএমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। 

তিনি বলেন, এটাকে বঙ্গোপসাগরে ফেলে দিতে হবে। তা না হলে দেশে আর কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। 

সোমবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির মিলনায়তনে “চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে ভোটাধিকার বঞ্চিতদের মতবিনিময় সভায়” প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আমীর খসরু বলেন, ইভিএম হচ্ছে ভোট চুরির উৎকৃষ্ট নীরব অস্ত্র। ক্ষমতাসীনরা নির্বাচনী কোনো নীতিমালা মানছে না। ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা কোথায়? চট্টগ্রামে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে দেয়া হয়নি। কোনো কোনো ভোটার কেন্দ্রে গিয়ে ফিঙ্গার প্রিন্ট দিলেও ভোট দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। 

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে নির্বাচনের কার্যক্রম ভোটের আগপর্যন্ত সুন্দর ছিলো। কিন্তু ভোটের দিন তাদের কেন্দ্র দখল, বুথ ও ইভিএম দখলের চরিত্র ফুটে উঠেছে। ইভিএমের মাধ্যমে মানুষ ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষমতা পাচ্ছেন না। ইভিএমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। সেটাকে বঙ্গোপসাগরে ফেলে দিতে হবে।

চট্টগ্রাম-৮ আসনে বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কাদের গণি চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির নেতা এমএ আজিজ, ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, সাইফুল ইসলামসহ অনেকে।