একশ’তেই গুটিয়ে গেলেন তামিমরা

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক: বিসিবি প্রেসিডেন্ট কাপের দ্বিতীয় ম্যাচে মঙ্গলবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ১০৩ রানে গুটিয়ে গেছে তামিম ইকবালের দল। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের পেস আক্রমণে সুবিধা করতে পারেননি তামিমরা। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে খেলতে পারেন মাত্র ২৩.১ ওভার।

ম্যাচের শুরুতে মাহমুদুল্লাহর দলের পেসার রুবেল হোসেনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ফিরে যান অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এরপরই নামে বৃষ্টি। কিন্তু সেই বৃষ্টির বাধা দারুণভাবে সামাল দিচ্ছিলেন তামিমের দলের দুই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান আনামুল হক বিজয় ও তরুণ ওপেনার তানজিদ তামিম। কিন্তু রুবেল হোসেন ও সুমন খানের পেস আক্রমণে সেট হয়ে ফিরে যান তারা।

তানজিদ তামিম ১৮ বলে তিন চারে খেলেন ২৩ রানের ইনিংস। পরে রুবেল তাকে মুমিনুলের ক্যাচে পরিণত করেন। মোহাম্মদ মিঠুনকে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরান রুবেল হোসেন। ৪২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় তামিমের দল। সেই চাপ থেকে মোসাদ্দেক-আনামুলরা উঠতে পারেননি।

মিডিয়াম পেসার সুমন খান প্রথমে তুলে নেন পাঁচে নামা সাহাদাত হোসেন দিপুকে। তিনি করতে পারেন ১ রান। ছয়ে নামা মোসাদ্দেকের ব্যাট থেকে আসে ৫ রান। তিনিও ফিরে যান সুমন খানের বলে। এরপর মিডিয়াম পেসার সুমন খান ৩৩ বলে দুই চার ও এক ছয়ে ২৫ রান করা আনামুলকে ফেরান এবাদতের হাতে ক্যাচ বানিয়ে। তামিমের দল রুবেল ও সুমনের তোপে ৬৮ রানে হারায় ৬ উইকেট।

বাকি কাজটা করেন মাহমুদুল্লাহর দলের দুই স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ও লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে ১২ রানে বোল্ড করে দেন মিরাজ। মাহেদি হাসানকে উইকেটরক্ষক নুরুলের ক্যাচে পরিণত করেন বিপ্লব। তাইজুলকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন মিরাজ তো শাফিউল ইসলামকে ক্যাচ বানিয়ে তুলে নেন বিপ্লব। এখন তামিমের দলের বোলার মুস্তাফিজ-সাইফউদ্দিন, তাইজুল-মাহেদিরা এই অল্প রানের পুঁজি নিয়ে কতক্ষণ লড়াই করতে পারেন সেটাই দেখার পালা।