শিল্পকলার নন্দন মঞ্চে মনোজ্ঞ রবীন্দ্র সন্ধ্যা

Spread the love

অনলাইন: দেশের প্রতি গভীর মমত্ববোধ থেকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছিলেন ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি’। এছাড়া লিখেছিলেন আরও অসংখ্য দেশপ্রেমের গান।

বিশ্বকবির এমন সব গান নিয়ে রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উন্মুক্ত প্রাঙ্গণের ভাসমান নন্দন মঞ্চে দু’দিনের রবীন্দ্রসঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সংস্থার একাংশ। মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের ৪৮তম বার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে ‘স্বার্থক জনম আমার জন্মেছি এই দেশে’ শীর্ষক এই অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। শুক্রবার ছিল এর সমাপনী সন্ধ্যা। কবিগুরুর গানের শিল্পীরা আরো বেশি নান্দনিক করে তুলেছিলেন ছুটির দিনের এই সন্ধ্যাটিকে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী বলেন, রবীন্দ্রনাথ বাংলাদেশের মানুষের কাছে অপরিহার্য ব্যক্তিত্ব, প্রেরণার উৎস ও জাতির মননের প্রতীক। তার গান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের মানুষকে প্রেরণা জুগিয়েছে। তাই তাকে অবলম্বন করে বিজয় উৎসবের আয়োজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ।

বাংলাদেশ রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী সংস্থার সভাপতি সাজেদ আকবরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক ড. মকবুল হোসেন। আলোচনা শেষে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের দেশাত্ববোধক গানে পরিবেশিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে একক সংগীত পরিবেশন করেন সাঈদা হোসেন, কেয়া হায়দার, সুফিয়া যাকারিয়া, সঞ্চিতা মিত্র, মাহবুবা কামাল, খন্দকার আবুল কালাম, সাজেদ আকবর, মকবুল হোসেন, গোলাম হায়দার, স্বর্ণময়ী মণ্ডল, মীরা মণ্ডল, মাহফুজা হক প্রমুখ।