মাটিরাঙ্গায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত।

আবুল হাসেম, মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি: “জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর: “প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন” এ প্রতিপাদ্য কে সামনে রেখে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় পালিত হয়েছে  বিশ্ব পরিবেশ দিবস।

১১ই জুলাই বেলা ১১.০০ ঘটিকার সময় উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আয়োজনে মাটিরাঙ্গা উপজেলা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত আলোচনা সভা পুরষ্কার ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশে সভাপতির বক্তব্যে বলেন,পরিকল্পিত কর্মপরিকল্পনা গ্রহনের ফলে জনসংখ্যা বৃদ্ধি রোধ হয়েছে জনসংখ্যা এখন অভিশাপ নয়। প্রশিক্ষণ ও প্রযুক্তির মাধ্যমে জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে পরিনত করতে হবে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের বিশাল জনসংখ্যার এ দেশের মানুষকে বোঝা মনে করেননি তিনি অত্যান্ত দক্ষতার সঙ্গে জনসংখ্যা বৃদ্ধিকে নিয়ন্ত্রণ করেছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম অন্যান্যদের মধ্যে মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সুবাস চাকমা মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান ডালিম,প্রমুখ আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নিটোল মনি চাকমা।

প্রতিপাদ্য বিষয়ের তাৎপর্য্য তুলে ধরে বক্তারা বলেন, পরিকল্পিত পরিবার গঠনের জন্যে নিজেদের সচেতনতাই যথেষ্ট। স্বামী-স্ত্রীর নিজেদের সচেতনতা ছাড়া পরিকল্পিত পরিবার গঠন করা কখনও সম্ভব নয়। দেশের প্রত্যন্ত গ্রাম ও দূর্গম পাহাড়ী এলাকায় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের লোকজন ছাড়াও স্থানীয় শিক্ষক, পাড়া প্রধান ধর্মীয় শিক্ষক এবং কাজীগণকে তাদের গুরুদায়িত্ব পালন করতে হবে।

পরে পরিবার পরিকল্পনায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কৃতিত্ব অর্জনকারীদের মাঝে ক্রেস্ট ও সনদ বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজ কুমার শীল, উপজেলা প্রশাসনের বিভাগীয় প্রধান, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক/শিক্ষিকা সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মতামত