ইফতার ভিক্ষা : আনোয়ার শাহাদাত হোসেন

ইফতার ভিক্ষা : আনোয়ার শাহাদাত হোসেন

মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন, রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি।

আর কত রোজা গেলে আসবে বল ইফতারি
পাড়ার লোকের নানান কথা শুনতে নই রাজি,
একে একে যাচ্ছে রোজা সয়না যে আর দেরি
খবর দিও ইফতারিটা যেন পাঠিয়ে দেয় আজি।

আমার জন্য চাইনা কিছু তোমার বাপের কাছে
ইফতারিটা সমাজের ধরা তাইতো এসব বলছি,
ঈদের সময় কাপড় চোপড় সেটা নিশ্চয় জানো
সময় মতো না দিলে করবে সবাই ছি! ছি!

বাকি, তরমুজ দিয়েছে বটে হয়নি তবু উপযুক্ত
দশ বাড়ি বিলিয়ে দিয়ে বাকি রইল আর কত!
তোমার বাপের বুঝা উচিত আত্মীয় স্বজন বেশি
দেয়ার সময় তাই যেন দেয় আমাদের হয় মত।

মেয়েটি শুনে এসব আর অশ্রু ঝরায় নীরবে
কেমন করে বলবে বাবাকে শ্বশুর বাড়ির অভিযোগ,
এত কিছু করার পরও বাবা যদি শুনেন এসব
মেয়ের চিন্তায় হয়তো তার বাড়বে হৃদ রোগ!

শত কিছু ভেবেও আবার মেয়ে পাঠায় খবর্
বাবা ইফতারিটা বেশি করে পাঠিও অতি দ্রুত.
মা তুই ভাবিসনা কিছু বুঝিয়ে বলিস তাদের
কাল পরশু পাঠিয়ে দেব তাদের সন্তুষ্ঠি মত।

সভ্য সমাজের এসব রীতি বুঝে আসেনা আমার
কেউ কি নেই এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ার!
যৌতুকের মতো এসবও যে সামাজিক এক ব্যাধি
চলুন সবাই সোচ্চার হয়ে এসবে মারি লাথি!

মতামত