ফুলবাড়ীতে তিলাই খালের উপর সুইচ গেট নির্মাণ হওয়ায় এলাকার কৃষকেরা সেচ সুবিধা পাচ্ছে

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: ফুলবাড়ীতে তিলাই খালের উপর সুইচ গেট নির্মাণ হওয়ায় সেচ সুবিধা পাচ্ছে এলাকার কৃষক। কৃষিতে বিপ্লব ঘটেছে সেচের পানিতে। দিনাজপুররের দক্ষিণ অঞ্চলের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপির তিলাই খালের উপর ২০১৩ সালে ২ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা ব্যায়ে সুইচ গেট নির্মাণ হয়। ঐ ইউনিয়নে তিলাই খাল পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লি: নামে একটি সংগঠন তৈরি হয়। তারাই মূলত এই সুইচ গেটটি তদারক করছেন।

সুইচ গেটের মুল জায়গা থেকে উত্তরে ৯ কি.মি ক্যনেল খনন করা হয়। সুইচ গেটটি নির্মান সম্পন্ন হওয়ার পর ক্যনেল থেকে কৃষকেরা প্রায় ২ শত অগভীর নলকূপ বসিয়ে পাইপের মাধ্যমে পানি উত্তোলন করে কৃষি কাজে উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ব্যবহার করছেন। ইতিপূর্বে ঐ এলাকায় প্রায় ৩ শত একর জমি অনাবাদি অবস্থায় পড়ে ছিল। বর্তমান সুইচ গেটের পানি দিয়ে এলাকার কৃষকেরা প্রায় দেড় হাজার একর জমিতে ইরি বোর ধান ও অন্যান ফসল উৎপাদন করছে। সুইচ গেটটি নির্মাণ হওয়ায় ঐ এলাকার কৃষদের ভাগ্য খুলে গেছে। পূর্বের চেয়ে ৩ গুন উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। কৃষকেরা আপাতত ঐ ক্যনেল থেকে বিনা পয়সায় পানি পাচ্ছেন। সমিতিকে কোন পয়সা দিতে হচ্ছে না। অপার দিকে ক্যনেলে মাছ চাষ হচ্ছে। ঐ এলাকার ছোট ছোট জেলেরা ক্যনেলে জাল ফেলে মাছ ধরছেন। এতে তাদের পরিবারের আয়ের উৎস হয়েছে। এই সমিতিতে সদ্যসের সংখ্যা ৪২৬ জন ।

এছাড়া সুইচ গেটের কিছুটা ক্ষতি সাধন হচ্ছে। সুইচ গেটের পিছনে ভাটির দিকে ৩ কি.মি কংক্রিট ব্লোক তৈরি করা হলে সুইচ গেটের তলিতে মাটি সরে যাবে না। পাকা ব্লোকের উপর দিয়ে পানি ভাটিতে নামবে। এছাড়া সুইচ গেট থেকে উত্তরে ৩ কি.মি এলাকায় তিলাই খালের ক্যানেলে কংক্রিট ব্লোক স্থাপন করলে পানির ¯্রত পাকা ব্লোকের উপর দিয়ে প্রবাহিত হবে। এতে সুইচ গেটের ক্ষতি সাধন থেকে রক্ষা পাবে। তিলাই খাল পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির কোষাধ্যক্ষ মোঃ কামরুজ্জামান জানান সরকারী ভাবে এই ক্যানেলটির দুই পাড় সম্প্রসারণ করা হলে সুইচ গেটটি ভবিষ্যতে নষ্ট হবে না। আমরা ক্ষুদ্র পানি সেচ প্রকল্পের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবগত করেছি।

দিনাজপুরের এল,জি,ই,ডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ খলিলুর রহমান ফুলবাড়ীর তিলাই খালের উপর সুইচ গেট নির্মাণে সার্বিক তদারক করেছেন। যাতে ঠিকাদার সুইচ গেটটি নির্মানে কোন রকম অনিয়ম না করতে পারে।

ফুলবাড়ী উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এল,জি,ই,ডি’র)প্রকৌশলী মোঃ শাহেদুজ্জামান জানান, অক্লান্ত পরিশ্রম করে ও কাজের গুনগত মান উন্নয়ন করে এই সুইচ গেটটি নির্মান করা হয়েছে। এখন এই সুইচ গেটের সুফল ভোগ করবেন ঐ এলাকার কৃষকেরা। কৃষিতে বিপ্লব ঘটার জন্য এবং স্থানীয় কৃষদের পানির সমস্যার কারণে এই সুইচ গেট করা হয়।

মতামত