মোদির বিপক্ষে প্রিয়াঙ্কার প্রার্থিতা প্রশ্নে রহস্য রাখলেন রাহুলও

অনলাইন ডেস্ক: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত না করলেও সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেননি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

‘দ্য হিন্দু’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘আমি আপনাদের অনিশ্চয়তায় রাখবো।’

গঙ্গায় প্রিয়াঙ্কার নৌযাত্রার প্রচারণার সময় প্রিয়াঙ্কা একটি ইঙ্গিত দেন। আর তাতেই বারানসীতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিপক্ষে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর সম্ভাব্য প্রার্থিতা নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই ভারতজুড়ে আলোচনা তুঙ্গে।

‘দ্য হিন্দু’র পক্ষ থেকে রাহুল গান্ধীর কাছে সরাসরি জানতে চাওয়া হয়— বারানসীতে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কংগ্রেসের প্রার্থী হচ্ছেন কি-না। জবাবে প্রিয়াঙ্কার বড় ভাই রাহুল বলেন, ‘আমি আপনাদের অনিশ্চয়তায় রাখবো। অনিশ্চয়তা সব সময় খারাপ না।’

ফলে কার্যত বারানসীতে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর প্রার্থী হওয়ার বিষয়টিকে একেবারে উড়িয়েও দেননি কংগ্রেস সভাপতি। বিষয়টি নিয়ে সরাসরি উত্তর দিতে সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী চাপাচাপি করলে রাহুল বলেন, ‘আমি কোনো কিছু নিশ্চিত করছি না বা কোনো কিছু অস্বীকারও করছি না।’

বারানসীতে প্রিয়াঙ্গার প্রার্থী হওয়াকে ঘিরে যে আলোচনা চলছে সে বিষয়ে তিনি নিজেই গত মাসে একটি ইঙ্গিত দেন। প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর মা সোনিয়া গান্ধী যে রায়বারেলি আসনে নির্বাচন করেন, সেই আসনে প্রিয়াঙ্কাকে লড়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন কংগ্রেস কর্মীরা। জবাবে সেদিন প্রিয়াঙ্কা দলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, ‘বারানসী নয় কেন?’

এর আগের দিনই দুই সন্তানের জননী ৪৭ বছর বয়সী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী তার দলের সভাপতি বড় ভাই রাহুল গান্ধীর নির্বাচনী এলাকা আমেথিতে সাংবাদিকদের বলেন, তিনি নির্বাচনে লড়তে প্রস্তুত। তিনি বলেন, ‘আমার দল যদি চায় যে আমি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করি, তাহলে আমি অবশ্যই সেটা করবো।’

বারানসীতে প্রিয়াঙ্কার প্রার্থী হওয়া নিয়ে তার স্বামী রবার্ট ভদ্রও সাংবাদিকদের কছে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেন, যা আলোচনাকে আরও উসকে দেয়। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিপক্ষে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আবির্ভূত হতে পারবেন কি-না— এমন প্রশ্নের জবাবে রবার্ট ভদ্র সাংবাদিকদের বলেন, ‘অবশ্যই।’

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর তিন দিনব্যাপী নৌযাত্রা প্রচারণার সমাপ্তি ঘটে বারানসীতে, যাকে অনেকে মোদির বিরুদ্ধে প্রিয়াঙ্কার প্রার্থী হওয়ার ইঙ্গিত হিসেবে নেন। তবে বিষয়টি যেহেতু রাহুল গান্ধী নিশ্চিত করেননি, তাই বারানসীতে মোদি-প্রিয়াঙ্কা লড়াই আদৌ হচ্ছে কি-না তা জানতে অপেক্ষায় থাকতে হবে আরও কিছুদিন। সূত্র: এনডিটিভি

মতামত