কালীগঞ্জে ফোনে ডেকে নিয়ে প্রবাসী যুবককে খুন

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি :

গাজীপুরের কালীগঞ্জে জুলহাস সরকার (৩০) নামের এক প্রবাসী যুবককে ফোনে ডেকে নিয়ে হত্যা করেছে। এমন অভিযোগ নিহত জুলহাসের পরিবারের। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) গভীর রাতে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে।

নিহত জুলহাস উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের পুনসহি গ্রামের বোরহান সরকার ছেলে। তিনি দুবাই প্রবাসী ছিলেন।

জাঙ্গালীয়া ইউপি চেয়ারম্যান গাজী সারোয়ার নিহতের পিতা বোরহান সরকারের বরাত দিয়ে জানান, বুধবার দিবাগত রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে জুলহাসের বাবা তাকে কন্দনরত অবস্থায় ফোন দিয়ে তার ছেলের খুনের বিষয়টি জানান। স্থানীয় কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে বলেন, রাতে তার ছেলেকে ফোনে ডেকে নিয়ে বাড়ির ধারে বেলাই বিলের পাশে নিয়ে যায়। সেখানে নেশাজাতীয় কিছু খাইয়ে তার ছেলেকে খুন করেছে বলেও তার বাবা ইউপি চেয়ারম্যানকে জানান।

নিহতের চাচা চাঁন মিয়া জানান, জুলহাস ৭/৮ বছর যাবৎ দুবাই প্রবাসী ছিল। ২/৩ বছর পর পর দেশে আসত। ব্যক্তিগত জীবনে সে বিবাহিত। তার ১ ছেলে ও ১ মেয়ে সন্তান রয়েছে। গত পরশু (১২ মার্চ) মঙ্গলবার দেশে এসেছেন। বুধবার রাত ৯টার দিকে কাজল সরকার নামে স্থানীয় এক লোক তাকে ফোনে ডেকে নেয়। রাত ১১টা হলেও বাড়িতে না ফিরায় বাড়ির লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। এক পর্যায়ে রাত ১২টার দিকে বাড়ির ধারে বেলাই বিলের পাশে জুলহাসের দেহ পড়ে থাকদে দেখেন। জীবিত না মৃত না ভেবে তাকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানকার জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, বুধবার দুবাইয়ের টাকা ভাঙ্গিয়ে বাংলাদেশী টাকা করেছে জুলহাস। ওই টাকা পয়সা তার সাথে বা বাড়িতে রেখেছে কিনা তা জানা সম্ভব হয়নি।

কালীগঞ্জ থানায় অফিসার ইনচার্জ মো. আবুবকর মিয়া জানান, ঘটনার কথা সকালে শুনেছি। মরদেহ গাজীপুর হাসপাতালে থাকায় সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছি ময়নাতদন্তের জন্য।

মতামত