‘ফাগুন হাওয়ায়’ দেখতে এসে কাঁদলেন ৬৫ বছরের বৃদ্ধা

অনলাইন ডেস্ক: খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে স্ট্রেচারে ভর করে মেয়ের সাহায্য নিয়ে আসলেন বৃদ্ধা। বয়স ৬৫ হবে। সবাই তাকিয়ে তার দিকে। এই বয়সে প্রেক্ষাগৃহে এসে ছবি দেখার এমন দর্শক সাধারণত চোখে পড়ে না। তাই হলে ছবি দেখতে আসা দর্শকরাও কিছুটা অবাকই হচ্ছিলেন তাকে দেখে। ছবিও তুলছিলেন কেউ কেউ। 

এমন দৃশ্য চোখে পড়লো শুক্রবার রাজধানীর বলাকা সিনেমা হলে। হলটিতে আজ মুক্তি পাওয়া তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘ফাগুন হাওয়ায়’ প্রদর্শিত হচ্ছে। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটের হওয়াতেই ছবিটি দেখতে এসেছেন এই বৃদ্ধা মহিলা। 

বিকেলে ভীড় হবে বলে সকালের প্র্রথম শো’তেই এসেছেন ছবিটি দেখতে। ছবি দেখার পর কেঁদে কেঁদে জানালেন অনুভূতি। জানান, বিপাশা হায়াতের একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ছবিটির কথা জানতে পারেন তিনি। সেই থেকে ছবিটি দেখার আগ্রহ বাড়ে তার মধ্যে। মুক্তির পাওয়ার পর প্রথম শোতেই তাই হাজির হয়েছেন। ছবিটিতে তিনি যা দেখেছেন তার অধিকাংশই  বাস্তবে ঘটেছে। সেটা তিনি দেখেছেন নিজের চোখেই। পরিচালক হুবহু সেই সময়টাকেই ধরেছেন। এই জন্য ধন্যবাদ তৌকীরকে। 

বলাকা সিনেমা হলে একই শো দেখতে এসেছেন ছবিটির নায়ক সিয়াম আহমেদ, অভিনেতা রওনক হাসান ও পরিচালক তৌকীর আহমেদ। তাদের মধ্য থেকে বৃদ্ধার সঙ্গে দেখা সাক্ষাৎ করতে আসেন সিয়াম। তাকে দেখেই বুকে জড়িয়ে ধরে বৃদ্ধা বলেন, এমন একটি ছবিই আমরা দীর্ঘদিন ধরে চাচ্ছিলাম। ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে এমন ছবি তো আমাদের দেশে হয়নি। তুমি খুব ভালো অভিনয় করেছো।’ কথাগুলো বলেই আবেগে কেঁদে ফেলেন বৃদ্ধা। 

শুক্রবার দেশের ৫২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ফাগুন ‘হাওয়ায়’ । এতে অভিনয় করেছেন তিশা ও বলিউডের যশপাল শর্মা  ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত  ছবিটি মুক্তির দিন সকাল থেকেই প্রতিটি প্রেক্ষাগৃহে উপচে পড়ছে দর্শক। এমন খবরই বিভিন্ন দিক থেকে জানা যাচ্ছে। সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহ গুলোতেও ঢুঁ মারছেন তৌকীর আহমেদসহ ‘ফাগুন হাওয়ায়’ এর সকল কলাকুশলীরা। বিকেলে ছবিটির কলাকুশলীরা ছুটবেন বঙ্গভবনে। কারণ আজ ‘ফাগুন হাওয়ায়’ ছবিটি দেখতে সম্মতি জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। বঙ্গভবনে সকলের উপস্থিতিতে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ এর প্রদর্শনী উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। 

মতামত