জাহালমকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবি

অনলাইন ডেস্ক: নিরপরাধ হয়েও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় টাঙ্গাইলের পাটকল শ্রমিক জাহালমের তিন বছর কারাবাসের প্রতিবাদ ও ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন। শনিবার সকালে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনটির নেতারা বলছেন, দ্রুত জাহালমকে এ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ক্ষতিপূরণ না দেওয়া পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন করা হবে।

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস। তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের বিচারে নিরীহ জাহালম তার জীবন থেকে ও পরিবার-পরিজন থেকে গত ৩ বছর বঞ্চিত ছিলেন। মহামান্য হাই কোর্টের নির্দেশনায় তার মুক্তি মানবিকতার ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। আমরা মনে করি ৩ বছরের অমানবিক আচরণের কারণে তার পরিবার পরিজনের যে বঞ্চনা, তার ক্ষতিপূরণ ১০ কোটি টাকা দুর্নীতি দমন কমিশনকে দিতে হবে।

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি জিয়াউদ্দিন তারেক আলী বলেন, নিরীহ পাটকল শ্রমিক জাহালমকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হোক। আর যেন জাহালমের মতো নির্দোষ কাউকে গ্রেফতার করে হয়রানি না করা হয়।

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ বলেন, জাহালম দুদকে হাজিরা দিয়েছেন, আদালতে হাজিরা দিয়েছেন, অনেকগুলো পর্যায়ের পর জাহালমকে জেলে যেতে হয়েছে। তাকে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি জিয়াউদ্দিন তারেক আলীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন— সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট এস এম এ সবুর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ কে আজাদ, সানোয়ার হোসেন সামছী, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম সবুজ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট পারভেজ হাসেম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহজাহান আলী সাজু প্রমুখ।

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবুড়িয়া গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর ছেলে জাহালম নরসিংদীর একটি পাটকলে কাজ করতেন। স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে থাকতেন সেখানে। ২০১৬ সালে দুর্নীতি দমন কমিশনের এক মামলার আসামি ‘আবু সালেক’ হিসেবে গ্রেফতার করা হয় জাহালমকে। জাহালমের ভাষ্য, তখন তিনি বারবার বলছিলেন, তিনি সালেক নন; কিন্তু তাতে কান দেননি দুদক কর্মকর্তারা। এর পর থেকে কারাবন্দি জাহালমের ঘটনা জেনে তাকে মুক্তি দিতে আদেশ দেন হাইকোর্ট। ওই আদেশে গত সোমবার প্রথম প্রহরে গাজীপুরের কাশিমপুর মুক্তি পান তিনি।

মতামত