ফাইনালে তামিমের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি

অনলাইন ডেস্ক: এভিন লুইস, রুশো, ভিলিয়ার্সরা বিপিএলে চলতি আসরে সেঞ্চুরির করেছেন। কিন্তু তা দিয়ে কি মন ভরে। দেশি কোন তারকার ব্যাট থেকে সেঞ্চুরির ইনিংস দেখতে না পাওয়ায় আক্ষেপ ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট ভক্তদের মনে। তামিম এবার সেই খেদ মেটালেন। 

কমলাঙ্ক বা কুমিল্লার জার্সি পরে খেলছেন তামিম। ষষ্ঠ আসরের মধ্যে দু’বার ফাইনাল খেলছে কুমিল্লা। কিন্তু বিপিএল ফাইনালে খেলার অভিজ্ঞতা তামিমের এই প্রথম। নতুন অভিজ্ঞতা নতুন স্মৃতি দিয়ে স্মরণ করে রাখলেন তামিম ইকবাল। খেললেন ৬১ বলে ১৪১ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। 

ব্যাটে নেমে তামিমকে এ ম্যাচে সব পরিস্থিতিই সামাল দিতে হয়েছে। শুরুতে দলের অন্যতম ভরসা এভিন লুইসকে হারিয়েছেন তারা। পরে আনমুলকে নিয়ে সতর্ক শুরু করে দলের রান এগিয়ে নিয়েছেন। দারুণ এক জুটি গড়ে আনামুল তাকে রেখে ফিরে গেছেন। পরের বলেই রান আউটে কাটা পড়লেন শামসুর রহমান। 

তার আউটে রাগতেও দেখা গেল তামিমকে। কিন্তু উপায় কি নিজের খেলাটা চালিয়ে নিতে শুরু করলেন তামিম। দলকে এগিয়ে নিতে শুরু করলেন ইমরুলকে নিয়ে। শুরু থেকেই দারুণ খেলা তামিম সবচেয়ে বেশি চড়াও হলেন রুবেল হোসেনের করা ১৫তম ওভারে। ওই ওভারে তিনি নিয়েছেন ২২ রান। পরেও রুবেল-রাসেরদের বলে চার-ছক্কার বৃষ্টি দেখিয়েছেন বাংলাদেশ ওপেনার। 

দারুণ সেঞ্চুরি ওই ইনিংস খেলার পথে তামিম ছক্কা হাঁকিয়েছেন এগারটি। আর চারের মারও সমান দশটি। খেলেছেন ২৩১ স্ট্রাইক রেট নিয়ে। দুর্দান্ত এই ইনিংস খেলে তামিম তার ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন। তার আগের সেঞ্চুরি টি-২০ বিশ্বকাপের ম্যাচে। 

এছাড়া বিপিএলে তিনি খেললেন তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসও। এর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৩০ রানের ইনিংস খেলন তামিম। বিপিএলে এবার খেললেন ১৪১ রানের ইনিংস। পুরণ করলেন বিপিএলের দেশি সেঞ্চুরির কোটা। এটা নিয়ে বিপিএলের চলতি আসরে ছয়টি সেঞ্চুরির দেখা মিলল। এছাড়া বিপিএলের দ্বিতীয় বড় সেঞ্চুরির রেকর্ডও গড়লেন তামিম। 

কিন্তু আগের পাঁচটির একটিও ছিল না বাংলাদেশের কোন ব্যাটনম্যানের। লাউরি ইভান্স, রাইলি রুশো, অ্যালেক্স হেলস এবং কুমিল্লার হয়ে এভিন লুইস আগেই সেঞ্চুরি করেছেন। কিন্তু স্থানীয় কোন তারকা সেঞ্চুরি দেখাতে পারেননি। তামিম এবার পূরণ করলেন সেটি।

মতামত