বিক্ষোভ,প্রতিবাদ সভা,আহত-৭

রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী বাছাই সভা ভুন্ডুল অনিরুদ্ধ রেজা,কুড়িগ্রাম :
কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী বাছাই সভা ভুন্ডুল হয়েছে। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জামায়াত নেতার নাম ঘোষনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করেছে উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা।
জানা গেছে,রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান,ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য তৃর্ণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগ এক প্রার্থী বাছাই সভার আয়োজন করে । গত রবিবার সন্ধ্যায় রাজারহাট ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে প্রার্থী বাছাই পর্বের প্রথম পর্যায়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উমর মজিদ ইউনিয়নের মঞ্জুরুল ইসলাম নামের এক ব্যাক্তিকে ওই ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক পরিচয়ে তাকে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী ঘোষনার সাথে সাথে উপস্থিত নেতাকর্মীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। এসময় নেতাকর্মীরা উক্ত ব্যাক্তি আওয়ামীলীগের সদস্য নয় জামায়াতে ইসলামের নেতা বলে হৈচৈ শুরু করেন। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষে হট্রগোল থেকে চেয়ার ভাংচুর ও হাতাহাতি হয়। এতে উভয় পক্ষে ৭জন আহত হয়।
এদিকে জামায়াত নেতাকে আওয়ামীলীগের ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী ঘোষনার প্রতিবাদে এবং সাবেক গণপরিষদ সদস্য আব্দুল্লাহ সোহরাওয়ার্দ্দীর কনিষ্ট পুত্র ও রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাহিদ সোহরাওয়ার্দ্দী বার্প্পীকে উপজেলা চেয়ারম্যান পদের একক প্রার্থী ঘোষনার দাবীতে ওইদিন রাতে উপজেলা শহরে উপজেলা আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ ও সোনালী ব্যাংক চত্বরে প্রতিবাদ সভা করে।
জামায়াত নেতার নাম ঘোষনার বিষয়ে জানতে চাইলে রাজারহাট উপজেলা আওয়ামলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুস ছালাম চাষী কোন মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আবুনুর মোঃ আক্তারুজ্জামান জানান,“সে জামায়াত শিবির একটাও নয়,সে আওয়ামীলীগের সদস্য,সে আওয়ামীলীগের উমরমজিদ ইউনিয়ন শাখার জয়েন্ট সেক্রেটারী পদের যে পরিচয় দিয়েছে ওটা তার ভূল পরিচয়”।

মতামত