অনলাইনে শপিং; মোবাইল কিনে পেলেন কাপড় কাচার সাবান

মনিরুজ্জামান জুলেট কলকাতা : অনলাইনে শপিং এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সময় সাশ্রয় হয় বেশ। থাকে ডিস্কাউন্ট অফারও। কিন্তু বিপত্তি যে নেই একেবারে তা কিন্তু নয়। এই যেমন ধরুন, অনলাইনে মোবাইল ফোনের অর্ডার দিলেন। সময়মতো ঘরের দুয়ারে চলে এলো প্যাকেট। তবে খুলতেই চক্ষু চড়কগাছ! দেখলেন প্যাকেটে মোবাইলের বদলে কাপড় কাচার সাবান। হ্যাঁ, এমন কাণ্ডই ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। ঘটনা কলকাতা শহরের বাগুইআটিতে। অনলাইনে মোবাইল ফোন অর্ডার দিয়ে কাপড় কাচার সাবান পেয়েছেন প্রীতি কুমার। গত মঙ্গলবার বাগুইআটির বাড়ির ঠিকানায় আসা লাল রঙের চকচকে বাক্স খুলতেই প্রীতি দেখেন, মোবাইলের বদলে তার ভেতরে রয়েছে ১০ টাকা দামের দুটো কাপড় কাচার বার সাবান! নীরজ কুমার ও তাঁর স্ত্রী প্রীতি বাগুইআটির বাসিন্দা। দুজনই চাকরিজীবী। আনন্দবাজার পত্রিকার অনলাইন সংস্করণকে নীরজ বলেছেন, ‘২০-২৩ জানুয়ারি একটি আন্তর্জাতিক অনলাইন বিপণি সমস্ত কেনাবেচায় বিশেষ ছাড় ঘোষণা করেছিল। সেই ছাড় দেখেই ২০ তারিখ একটি মোবাইল ফোনের অর্ডার দিয়েছিলাম। সেখানে পুরোনো মোবাইল বিনিময়ের সুযোগও ছিল।’ নীরজ আরো জানান, স্ত্রীর একটি পুরোনো মোবাইল বিনিময় করার শর্তে অনলাইনে পাঁচ হাজার ৮৯৯ টাকা পরিশোধও করেন। নীরজ জানান, ২১ জানুয়ারি তাঁর কাছে একটি খুদে বার্তা আসে। সেখানে ওই বিপণির তরফে জানানো হয়, ২২ জানুয়ারি মোবাইল ডেলিভারি করা হবে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার দুপুরে মোবাইল ডেলিভারি দিতে বাসায় যান দুই যুবক। প্যাকেটটি গ্রহণ করেন প্রীতি। ঘরে ঢুকে খুলতেই হতবাক তিনি। বাক্সে মোবাইলের বদলে কাপড় কাচা সাবানের বার! প্রীতির অভিযোগ, ‘এর পর ভালো করে খেয়াল করে দেখি, মোবাইলের বাক্সের সিল ঠিক করে আটকানো নেই। পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছিল, সিল ভাঙা হয়েছে।’ পরে ওই বিপণি সংস্থাকে ফোন করেন তাঁর স্বামী। ঘটনা তদন্ত করে দেখার আশ্বাসও দেয় তারা। প্রায় ছয় হাজার টাকা ও পুরোনো মোবাইল খুইয়ে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরে ওই সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন এ দম্পতি।

মতামত