সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো লক্ষণ নেই: চরমোনাই পীর

ছবি: সমকাল

অনলাইন ডেস্ক: ইসলামী আন্দোলনের আমির চরমোনাই পীর সৈয়দ রেজাউল করীম অভিযোগ করেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন কখনও সুষ্ঠু হয়নি; এবার হবে তেমন সম্ভাবনাও দেখছেন না। শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ইসলামী আন্দোলনের ইশতেহার প্রকাশ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। 

নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ইসলামী আন্দোলন সর্বোচ্চ ২৯৯ আসনে প্রার্থী দিয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে স্থানীয় সরকারের নির্বাচনে উল্লেখযোগ্য ভোট পেয়ে আলোচনায় আসা দলটি এবারের ভোটের প্রচারে জোরেশোরে রয়েছে। বড় দল বিএনপি নামতে না পারলেও ভোটের প্রচারে ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখার অবস্থান নৌকার পরই। তবে দলটির আমিরের অভিযোগ, বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচনের সম্ভাবনা নেই। 

চরমোনাইর পীর বলেন, প্রতিদিন গুম, খুন, গ্রেফতার চলছে। নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে গৃহযুদ্ধের পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে।প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে অনুরোধ, দেশ রক্ষায় যেন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা হয়। 

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও নিরপক্ষে নির্বাচনের জন্য এখনও সংগ্রাম করতে হবে, তা দেশবাসী আশা করেনি; যা বাংলাদেশের মানুষের জন্য দুঃখ ও লজ্জার।

ইসলামী আন্দোলনের ইশতেহারে ৩৩ দফা ঘোষণা রয়েছে। উন্নত কল্যাণ রাষ্ট্র গঠনে ঘুষ, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদক, দলীয়করণ বন্ধে ১৬টি অগ্রাধিকার ঘোষণা করা হয়েছে। দলটি ক্ষমতায় যেতে পারলে ২১টি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন ঘোষণা দেওয়া হয়।

ইশতেহারে সাংবিধানিক কমিশন গঠন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান ও দারিদ্র্য বিমোচন, কৃষি বিপ্লব ও কৃষকের অধিকার প্রতিষ্ঠা, অর্থনীতি, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ, গ্রামীণ উন্নয়ন, নারীর অধিকার ও ক্ষমতায়ন এবং মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে প্রতিশ্রুতি রয়েছে।

ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব ইউনুস আহমাদ, দলটির রাজনৈতিক উপদেষ্টা আশরাফ আলী আকনসহ রাজধানীর ১৫টি আসনের দলীয় প্রার্থীরা।

মতামত