প্রধানমন্ত্রী অন্য দলগুলোর সঙ্গেও সংলাপে রাজি: কাদের


আলোকিত দেশ প্রতিবেদক •


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বিকল্প ধারার পাশাপাশি অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও সংলাপে বসতে রাজি আছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দেখি কারা কারা আগ্রহী। তবে সময় একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যদি ৪, ৫ বা ৬ নভেম্বর তফসিল (জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা) হয়ে যায়, এরপর কী করে আলোচনা হবে?

এর আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূত টমাস প্রিনজ ও ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত মারি আন বোখতা সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। কাদের জানান, প্রধানমন্ত্রীর সংলাপের উদ্যোগকে দুই রাষ্ট্রদূতই ইতিবাচক বলেছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা পাঁচ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করায় সংলাপের ফল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, আইনি বিষয়ের সঙ্গে সংলাপের সম্পর্ক নেই। তবে বিষয়টি নিয়ে সংলাপে আলোচনার পথে বাধা নেই।

সংলাপের আমন্ত্রণপত্রে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সংবিধানসম্মত বিষয়ে আলোচনার দ্বার উন্মুক্ত। তাহলে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের সাত দফা দাবির বিষয়ে কী হতে পারে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যেহেতেু এটি সংলাপের আলোচ্য বিষয়। কাজেই সেখানে এটা আলোচনার সুযোগ আছে। তবে রেজাল্ট কী আসবে, তা বলতে পারব না। আগাম মন্তব্য থেকে বিরত থাকতে চাই।

মতামত