ইবিতে কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপনের দাবিতে মানববন্ধন

ইবি প্রতিনিধি • দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার পরেও কোটা সংস্কারের বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়ায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আবারও আন্দোলনে নেমেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীরা। মহান জাতীয় সংসদে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা বাতিলের যে যুগান্তরকারী ঘোষণা দিয়েছেন, তা দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশের দাবিতে আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১২ টায় ‘মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব’ চত্বরে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে এ মানববন্ধব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

গত ১১ এপ্রিল জতীয় সংসদে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় পার হয়ে গেলেও প্রজ্ঞাপন জারি করার ব্যাপারে কোন অগ্রগতি দেখা যায়নি। মানববন্ধনে কোটা বাতিল ঘোষণা দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশের দাবি করেছেন তারা।

এ ছাড়াও আন্দোলনে অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থীদের যদি কোন প্রকার বাধা ও হয়রানি মূলক কোন কিছু করা হয় বাংলার ছাত্রসমাজ তার দাতভাঙা জবাব দিবে বলে ঘোষণা দেন তারা। গত সোমবার (০৭ মে) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানিয়েছিলেন, সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিল বা সংস্কারের বিষয়ে কোনো অগ্রগতি নেই।

তার এ বক্তব্যের পর মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কর্মসূচি ঘোষণা করে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছেন শিক্ষার্থীরা। এরইমধ্যে প্রধানমন্ত্রী সংসদে কোটা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন। আন্দোলনের এক পর্যায়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে বসে আন্দোলনকারীরা ৭ মে পর্যন্ত সময় নিয়েছিলেন।

কিন্তু কোটা বাতিল বা সংস্কারের সরকারি প্রজ্ঞাপন না হওয়ায় আবারো আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা।

মতামত