জয়পুরহাটে জনতা ব্যাংকের ৪৫ লক্ষ টাকা চুরির ঘটনায় গ্রেফতার ৩

জয়পুরহাটে জনতা ব্যাংকের শাখা থেকে ৪৫ লাখ টাকা চুরির ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার গ্রেফতার হওয়া ওই তিনজন হলেন- ব্যাংকের সিনিয়র ক্যাশিয়ার মো. রায়হান আলী, ক্যাশিয়ার সাইফুল ইসলাম এবং পিয়ন আমানত হোসেন।

এদের মধ্যে রায়হান ও আমানতকে মঙ্গলবার এবং সাইফুলকে বুধবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা  হয়েছিলো। পরে তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম হোসেন জানান, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে সন্দেহজনক তথ্য পাওয়ায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।

তিনি জানান, তাদের আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন জানানো হবে আদালতে।

এদিকে এ চুরির ঘটনায় ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম অজ্ঞাতনামাকে আসামী করে সদর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। ব্যাংকের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার দুপুরে সোনালী ব্যাংকে জমা দেয়ার জন্য ওই ব্যাংকটির ক্যাশ কাউন্টারের মেঝেতে রাখা টাকার একটি ব্যাগ ক্যাশিয়ারের সামনে থেকে তুলে নিয়ে সটকে পড়েন কেউ।

ব্যাংকের ম্যানেজার মো. শাহ আলম জানান, ৪৫ লাখ টাকা স্থানীয় ট্রেজারী ব্যাংক সোনালী ব্যাংকে জমা দেয়ার জন্য প্রস্তুত করে একটি ব্যাগে ভরে ক্যাশ কাউন্টারের মেঝেতে রেখেছিলেন পিয়ন আমানত আলী। এ সময় ক্যাশ কাউন্টারে ক্যাশিয়ার মো. রায়হান আলী, ক্যাশিয়ার মো. সাইফুল ইসলাম এবং ক্যাশিয়ার মীর মাহাবুব হাসান কর্মরত ছিলেন।

তিনি জানান, ব্যাংকের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায় বেলা ১০টা ৫৩ মিনিটে মাঝ বয়সী এক ব্যাক্তি ক্যাশ কাউন্টারে ঢুকে ক্যাশিয়ার মো. রায়হান আলীর পাশের একটি টেবিলের নীচ থেকে ওই টাকার ব্যাগটি নিয়ে বেরিয়ে যায়। ব্যাংকের ভিতরেই ওই ব্যক্তি টাকার ব্যাগটি তার আরেক সহযোগীর হাতে দেয়। এরপর চক্রটি ব্যাংক থেকে বেরিয়ে যায়।

ব্যাংক ম্যানেজার জানান, ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর ক্যাশিয়ার রায়হান তাকে জানান- টাকার ব্যাগ পাওয়া যাচ্ছেনা। এরপর ব্যাংকের সিসি টিভি ফুটেজে ওই ঘটনা দেখতে পান ব্যাংক ম্যানেজার।

মতামত