গায়ে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

গৃহবধূ মুন্নীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় এক গৃহবধূকে গায়ে কেরোসিন ঢেলে তার স্বামী পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগে উঠেছে।

এ ঘটনায় শরীরের প্রায় ৭৫ শতাংশ পুড়ে যাওয়া গৃহবধূ মুন্নী খাতুনকে (২৫) সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার রাতে উপজেলার খলিশখালি ইউনিয়নে বাগমারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মুন্নী খাতুন বাগমারা গ্রামের মুছা গাজীর স্ত্রী। এ ঘটনায় গায়ে আগুন লেগে মুছা গাজীও সামান্য আহত হয়েছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধু মুন্নী জানান, প্রায় ৫ মাস আগে তার একটি বাচ্চা হয়। জন্মের সময় তার সন্তানের নাড়ি ছিড়ে যায়। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে প্রায় ঝগড়া হতো। স্বামী তাকে প্রায়ই মারধর করতো এবং তাকে বাবার বাড়ি চলে যেতে বলতো, অন্যথায় হত্যার হুমকি দিতো।

তিনি জানান, শনিবার রাতেও তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথাকাটি হয়। সে সময় স্বামী তাকে মারধর করে। পরে রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়লে স্বামী মুছা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফরহাদ জামিল বলেন, গৃহবধূর শরীরের ৭৫ শতাংশ পুড়ে গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা নিতে বলা হয়েছে।

সাতক্ষীরা পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা জাকির হোসেন জানান, এ ধরনের কোনো ঘটনার বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মতামত