বঙ্গবন্ধুকে অস্বিকার করা হলে বাংলাদেশকে অস্বীকার করা হবে

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি • বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, শোক র‌্যাালী, আলোচনার সভা ও দোয়া মাহফিলের মধ্যদিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় খাগড়াছড়ির গুইমারাতে পালিত হয়েছে স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস। সকাল ১০টায় গুইমারা উচ্চ বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্প অর্পন ও শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি শোক র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে গুইমারা উপজেলা পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে আলেচানা সভায় অন্যান্যের মধ্যে গুইমারা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ঝর্না ত্রিপুরা, গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জোবায়রুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সসম্পাদক মেমং মারমাসহ জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধারা, উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সকল সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা, স্কুল-কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভার শুরুতে জাতির জনকসহ যারা ১৫ আগষ্টে শহীদ হয়েছেন তাদের মাগফিরাত কামনা করে একমিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

এতে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধকে অস্বিকার করা হলে বাংলাদেশকে অস্বীকার করা হবে। আজকের এই দিনটিতে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে নির্মম ভাবে হত্যা করেছে। আজও সেই অপশক্তি বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল রাষ্ট্রে পরিনত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

তাই এ ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সবাইকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়ে বক্তারা দ্রুত বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের দাবী জানান।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষ্যে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান গুলোতে দোয়া মাহফিল ও বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

মতামত